শাহবাগ ও বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদ

আচমকা থমকাইয়া গিয়াছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের আন্দোলন—পত্রিকান্তরে এমন কথা লেখা হইতেছে। আন্দোলনের কৌশল ঠিক করিতে ইহারই মধ্যে দলের স্থায়ী কমিটি কয়েকটি বৈঠক করিয়াছেন। কিন্তু কৌশল চূড়ান্ত হয় নাই। ধরিয়া লইতেছি শাহবাগ মোড়ের আন্দোলন কোন দিকে মোড় লয় তাহা দেখিবার অপেক্ষায় রহিয়াছেন তাঁহারা।

একদিকে তাঁহারা জামায়াতে ইসলামির সহিত সম্মিলিত কর্মসূচি স্থগিত করিয়াছেন, আবার আন্দোলনকারি শাহবাগের সহিত সংহতিও জানাইতে পারেন নাই। দলের মধ্যে দ্বিধা দেখা দিয়াছে। দেড় মাস বন্দি থাকিবার পর বাহির হইয়া দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মীর্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর যে বিবৃতি দিয়াছেন তাহা অতি সুন্দর। রূপকথার নায়ককেও হার মানাইয়া তিনি বলিয়াছেন জনগণের আন্দোলন শুরু হইয়াছে। এ আন্দোলন মানুষের অধিকারের আন্দোলন। আন্দোলনের জয় হইবেই ।

আলমগীর সাহেবের বাক্য শুনিতে শুনিতে আমার কীর্তনিয়া শশিশেখরের একটি পদ মনে পড়িল। আমি দীনেশচন্দ্র সেনের বিবরণ অবলম্বন করিয়া লিখিব। সখীপরিবৃৃতা রাধা মান করিয়া বসিয়া আছেন। কৃষ্ণ তাঁহার পদযুগল ধরিয়া আছেন। শুক ও সারি বিবাদ করিতেছে। একজন কৃষ্ণপক্ষে, আরজন রাধাপক্ষে।

সখীরা রাধিকাকে গঞ্জণা করিয়া বলিতেছে, ‘শ্যামকে না দেখিলে মরবি, দেখিলেও মান করবি’। আর রাধা বসিয়া আছেন তো বসিয়াই আছেন। চিত্রার্পিতা মূর্তির ন্যায় বসিয়া আছেন। মুখে কোন কথা নাই।

‘মানিনী যাহা চাহেন না বলেন’, দীনেশচন্দ্র সেন লেখেন, ‘তাহাই আরও বেশি করিয়া চাহেন, অথচ মুখ ফুটিয়া কিছুতেই বলিবেন না–  ইহা গভীর প্রেমের ছদ্মবেশ।’

এই গভীর প্রেমের ছদ্মাবেশকে বাংলাদেশের কবিরা ‘মান’ শব্দে প্রকাশ করিয়াছেন। খোদ দীনেশচন্দ্র বলিয়াছে, ‘মান’ শব্দটির প্রতিশব্দ আর কোন ভাষায় আছে কিনা, জানি না ! ইহার অর্থ রাগ, ক্রোধ, গোস্বা বা খাপ্পা হওয়া নহে। এই সকলই কাঠ-খোট্টা।

দীনেশচন্দ্র হইতে আরও খানিক ধার করিতেছি।

‘শব্দে মানের মাধুর্য বুঝান শক্ত। ইহা কৃত্রিম রাগও নহে; কারণ মূলে উপেক্ষার আঘাত আছে। ইহা প্রণয়ীর চিত্তের প্রেমের গভীরতা পরীক্ষা করিবার একটা কষ্টিপাথর; যিনি মান করেন, তিনি প্রেমিককে ছাড়িতে চাহেন না, বরং আরও কাছে আনিতে চাহেন- যদিও ইহা বাহ্যে কঠোর, ইহার ভিতরটা একেবারে কুসুমকোমল।’

দোহাই:

দীনেশচন্দ্র সেন, পদাবলি-মাধুর্য, পুনমুদ্রণ (কলিকাতা: পাতাবাহার ১৪১৮) [প্রথম প্রকাশ ১৩৪৪]।

১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৩

 

১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৩, সর্বজন, বুলেটিন ৩

Leave a Reply